১ লাখ টাকা দিবি নইলে মামলা দিব, থানায় নিয়ে যাব

একজন অসহায়ের ওয়াল থেকে,

পুলিশের পরিচয় বা বৈশিষ্ট সম্পর্কে জানার মত বা নতুন করে বলার মত কিছু নেই। তারপরও যখন নিজের সাথে কোন ঘটনা ঘটে যায় তখন সেই ঘটনা ভুলে যাওয়া যায় না। জীবিকার তাগিদে মা,বউ, বাচ্চা, রেখে ঢাকায় থাকতে হয়। মাল্টি” নামের একটি বিস্কুট কম্পানিতে মার্কেটিং এ কাজ করে সহজ সরল ভাবে জীবন যাপন করি। ছুটি পেয়ে পরিবারের টানে গ্রামের বাড়ি চাঁদপুর যাই গত ১৮/৪/২০১৭ তারিখে। ১৯,২০, তারিখ ছুটি কাটিয়ে ২১তারিখ শনিবার কাজে জয়েন করার কথা ছিলো। দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য ২০ তারিখ শুক্রবার রাত ১১:৩০ টার দিকে পাটোয়ারী বাজার থেকে বাচ্চার জন্য ওষুধ আনছিলাম। রাস্তায় বাল্যবন্ধু মিলনের সাথে দেখা। বন্ধু ডেকে বললো অনেক দিন পর দেখা চল কিছুক্ষন কথা বলি। সাথে আরও দুই জন বন্ধু ছিলো। বন্ধুর অনুরোধে তার বাড়িতে গেলাম। কথা বলছিলাম,হঠাৎ চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ থানার এস.আই সুমন তার নেতৃত্বে টহলে আসে। ভালো মন্দ কথা নেই আমাদের দেখে উলটা পালটা প্রশ্ন শুরু করে। আচমকা উলটা পালটা প্রশ্নে ক্লিয়ার উত্তর দিতে পারছিলাম না আমরা কেউই। আচমকা বলে বসলেন, ঢাকা থেকে ইয়াবা নিয়ে আসছো, গাজা নিয়ে আসছো, মেয়ে নিয়ে আসছো কোথায় সেগুলা??? হতবম্ব আমরা কিছুই বলতে পারছিলাম না। বলব কি করে। কে জানে এর উত্তর। একজনকে আড়ালে ডেকে নিয়ে বললো, এক লাখ টাকা দিবি নইলে মামলা দেব, এখনি থানায় নিয়ে যাব। এবার আর চুপ থাকতে পারলাম না। প্রতিবাদ করতে শুরু করলাম। লাভ কি যেই বলা সেই কাজ। ক্ষমতা যার হাতে তারই শক্তি। ধরে নিয়ে গেলো থানায়। বলদ সেজে গেলাম সবাই। পরদিন মান সম্মানের ভয়ে ২০ হাজার টাকা ঘুস দিলাম। ছোট একটি সাধারণ(জুয়া) মিথ্যা মামলা দিয়ে মোবাইল কোর্টে পাঠালো। পরে মোবাইল কোর্ট থেকে জামিন নিয়ে বাড়ি ফিরলাম। এই হলো প্রশাসনে কর্মরত কর্মকর্তা। আর আমরা আম পাবলিক। কোথায় যাবে এই পাবলিক। এই সমস্থ ব্যাক্তি স্বার্থবান পুলিশের জন্য প্রশাসনের হয় বদনাম,সরকারের হয় বদনাম, অপরাধীরা পায় মু;ক্তি আর সাধারণ মানুষ হয় হয়রান।

(5)

Share

Leave a Reply